1. admin@happinesstvbd.com : admin :
রবিবার, ২০ জুন ২০২১, ০৯:৫৮ অপরাহ্ন

দোয়া ও আমলের ফজিলত

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত : সোমবার, ১ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৫৩ জন দেখেছেন

আমরা সকলেই আল্লাহ্‌ কে খুব সহজে দোষারোপ করতে ভালবাসি যেমন, কোন কারনে কোন কাজ হয় নি আল্লাহর দোষ। আল্লাহ্‌ চাইলে আমাকে দিতে পারত কেন দিল না। ব্যবসায় লস হইসে সেটা ও আল্লাহ্‌র দোষ উনি চাইলে দিতে পারত, কেন দিল না। এমনি নানা কারনে আমরা আল্লাহ্‌ কে দোষারোপ করে থাকি।

কখন ও কি ভেবেছি যে, আমরা কি সঠিক নিয়মে আল্লাহ্‌ কে মানি কিনা? কখন ও কি ভেবেছি যে, আল্লাহ্‌র দেয়া নিয়ম অনুযায়ী আমরা আমল করি? আজ সেই দোয়া ও আমল নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করছি।

দোয়া ও আমল -১

বাংলা উচ্চারনঃ
বিসমিল্লা হিল্লাজি লায়া দুররু মা’আস মিহি শাই উন ফিল আরদি, ওয়ালা ফিস সামা’ঈ ওয়া হুয়াস সামিউল আলিম।

হাদিস
রাসুল (সাঃ) এরশাদ করেছেন, যে ব্যাক্তি সকাল-সন্ধ্যা এই দোয়াটি তিন বার পড়বে, কোন জিনিষ তাকে কোন রুপ ক্ষতিসাধন করতে পারবেনা।

(মেশকাত – ২০৯)

বলা হয়ে থাকে আমরা যদি এই আমল নিয়মিত করি কোন অবাঞ্ছিত বন্দুকের গুলিও আমাদের শরীরে ঢুকতে পারবেন। তাই এই রকম ছোট আমল আমাদের আল্লাহ্‌ তায়ালা সর্বদা করার তৌফিক দান করুক আমিন।

দোয়া ও আমল -২

বাংলা উচ্চারনঃ
হাসবিয়াল্লাহু লা ইলাহা ইল্লা হুওয়া আলাইহি তাওাক্কালতু ওয়া হুওয়া রাব্বুল আরশিল আজিম।

হাদিসঃ
রাসুল (সাঃ) এরশাদ করেছেন, যে ব্যাক্তি সকাল-সন্ধ্যা এই আয়াত ৭ বার পাঠ করবে, তাহার দুনিয়া ও আখিরাতের সমস্ত চিন্তা-ভাবনার জন্য আল্লাহ্‌ পাক সমাধানকারী হয়ে যাবেন।

(রুহুল মায়ানী – ৫৩, আবু দাউদ)

দোয়া ও আমল -৩

বাংলা উচ্চারণ
লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াহদাহু লা শারিকালাহু লাহুল মুল্কু ওয়ালাহুল হামদু ওয়া হুওয়া আলা কুল্লি শাই ইন কদির। ওয়া সুবহানাল্লাহি ওয়াল হামদু লিল্লাহি ওয়ালা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াল্লাহু আকবার। রব্বিগ ফিরলি।

হাদিস
রাসুল (সাঃ) এরশাদ করেছেন, যে ব্যাক্তি ঘুম থেকে জাগ্রত হয়ে এই দোয়া পাঠ করবে করবেঃ সে যে কোন দোয়া করবে তা কবুল করা হবে। এবং অজু করলে নামাজ পরলেও তা কবুল করা হবে।

(তিরমিজি – ২/১৭৮, মেশকাত – ১০৮, বুখারী)

দোয়া ও আমল -৪
দোয়া ও আমল সংক্রান্ত কিছু হাদিস ও তাঁর অর্থঃ
রাসুল (সাঃ) এরশাদ করেছেন, যে ব্যক্তি প্রতিদিন ২০০ বার সূরা ইখলাস পাঠ করবে তাঁর পঞ্চাশ বছরের গুনাহ আল্লাহ্‌ তায়ালা ক্ষমা করে দিবেন কোন প্রকার ঋণ ব্যতীত।
(মেশকাত – ১৮৮)

রাসুল (সাঃ) এরশাদ করেছেন, যে ব্যাক্তি ১০ বার সূরা ইখলাস পাঠ করবে তাঁর জন্য জান্নাতে একটি প্রাসাদ বানানো হবে। আর যে ব্যাক্তি ২০ বার পাঠ করবে তাঁর জন্য জান্নাতে ২ টি প্রাসাদ নির্মান করা হবে। যে ব্যাক্তি ৩০ বার পাঠ করবে তাঁর জন্য ৩ টি প্রাসাদ নির্মান করা হবে। তখন হযরত অমর (রাঃ) বললেন ইয়া রাসুলাল্লাহ! আমরা আমাদের প্রাসাদ বেশি করিব। তখন রাসুল (সাঃ) বলিলেন আল্লাহ্‌ পাক ইহার চাইতেও প্রশস্ত। অর্থাৎ দেয়ার ব্যাপারে আল্লাহ্‌ পাক বেশি প্রশস্ত।
(মেশকাত – ১৯০)

রাসুল (সাঃ) এরশাদ করেছেন, যে ব্যাক্তি প্রতি রাতে সূরা ওয়াকিয়াহ পাঠ করবে, তাকে দুর্ভিক্ষ কখন ও স্পর্শ করবেনা।
(মেশকাত – ১৮৯)

যে ব্যাক্তি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের পর আয়াতুল কুরসি পাঠ করবে জান্নাতের মাঝে আর তাঁর মাঝে পার্থক্য শুধু জান্নাত।
(নাসায়ী শরীফের হাদিস)

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটেগরীর আরো নিউজ
© All rights reserved © 2019-happinesstvbd.com
Develper By : Porosh Network Ltd